তেলাকুচা/Ivy gourd, ঔষধি গুণ।Health Benefits

তেলাকুচা/little gourd
                     Please visit: http://bonajiousadhaloy.blogspot.com
                 Coming soon website:www.natureandentertainment.com
     email: [email protected]
Show room: H#28, Road#4, Block#F, Banasree, Rampura Dhaka, Bangladesh
Office: H#4, Road#4, Block#G, Banasree, Rampura Dhaka, Bangladesh
           +8801819208354
           +8801620120817
এখানে সুলভ মূল্যে গাছ-গাছড়ায় তৈরী ভেষজ ঔষধ ও উন্নত মানের মশলা পাওয়া যায়All kinds of  herbal foods and spices available here.
এটা †Kv‡bv †cÖmwµcmb bq| This is not a prescription.
Take advise from the Doctor before use.
তেলাকুচা
তেলাকুচা একপ্রকারের ভেষজ উদ্ভিদ। এর বোটানিক্যাল নাম Coccinia grandis বা Coccinia Cordifolia Cogn। এটি Cucurbitaceae পরিবারের অন্তর্ভুক্ত এবং ভেষজ নাম: Coccinia। বাংলাদেশে স্থানীয়ভাবে একে কুচিলা, তেলা, তেলাকচু, তেলাহচি, তেলাচোরা কেলাকচু, কেলাকুচ, তেলাকুচা বিম্বী ইত্যাদি নামে ডাকা হয়। এর ইংরেজি নাম 'ivy gourd', baby watermelon, little gourd বা gentleman's toes। এটি ক্রান্তীয় অঞ্চলের লতাগাছ। এর অন্যান্য বৈজ্ঞানিক নামগুলো হলো Cephalandra indica এবং Coccinia indica। কানাড়া ভাষায় এর নাম 'thonde kaayi'(ತೊಂಡೆ ಕಾಯಿ)। অনেক অঞ্চলে এটি সবজি হিসেবে খাওয়া হয়। গাছটির ভেষজ ব্যবহারের জন্য এর পাতা, লতা, মূল ও ফল ব্যবহৃত হয়।

তেলাকুচা একটি লতানো উদ্ভিদ। এটি গাঢ় সবুজ রঙের নরম পাতা ও কাণ্ডবিশিষ্ট একটি লতাজাতীয় বহুবর্ষজীবী উদ্ভিদ। লতার কাণ্ড থেকে আকশীর সাহায্যে অন্য গাছকে জড়িয়ে উপরে উঠে। পঞ্চভূজ আকারের পাতা গজায়, পাতা ও লতার রং সবুজ।
তেলাকুচা, বসতবাড়ির আশেপাশে, রাস্তার পাশে, বন-জঙ্গলে জন্মায় এবং বংশবিস্তার করে। সাধারণত বাংলা চৈত্র-বৈশাখ মাসে তেলাকুচা রোপন করতে হয়। পুরাতন মূল শুকিয়ে যায় না বলে গ্রীস্মকালে মৌসুমী বৃষ্টি হলে নতুন করে পাতা গজায় এবং কয়েক বছর ধরে পুরানো মূল থেকে গাছ হয়ে থাকে। শীতকাল ছাড়া সব মৌসুমেই তেলাকুচার ফুল ও ফল হয়ে থাকে। ফল ধরার ৪ মাস পর পাকে এবং পাকলে টকটকে লাল হয়
তেলাকুচা ফলে আছে 'মাস্ট সেল স্টেবিলাইজিং', 'এনাফাইলেকটিক-রোধী' এবং 'এন্টিহিস্টামিন' জাতীয় উপাদান কবিরাজী চিকিৎসায় তেলাকুচা বেশ কিছু রোগে ব্যবহৃত হয়, যেমন- কুষ্ঠ, জ্বর, ডায়াবেটিস, শোথ (edema), হাঁপানি, ব্রংকাইটিস ও জন্ডিস।
 অবহেলিত এ লতা জাতীয় গাছটি অত্যন্ত উপকারী। আসুন জেনে নিই এর ঔষধি গুণ।
ডায়াবেটিসঃ
ডায়াবেটিস হলে তেলাকুচার কান্ড সমেত পাতা ছেঁচে রস তৈরি করে আধাকাপ পরিমাণ প্রতিদিন সকাল ও বিকালে খেতে হবে। তেলাকুচার পাতা রান্না করে খেলেও ডায়াবেটিস রোগে উপকার হয়।
জন্ডিসঃ
জন্ডিস হলে তেলাকুচার মূল ছেঁচে রস তৈরি করে প্রতিদিন সকালে আধাকাপ পরিমাণ খেতে হবে।
পা ফোলা রোগেঃ
গাড়িতে ভ্রমণের সময় বা অনেকক্ষণ পা ঝুলিয়ে বসলে পা ফুলে যায় একে শোথ রোগ বলা হয়। তেলাকুচার মূল ও পাতা ছেঁচে এর রস ৩-৪ চা চামচ প্রতিদিন সকালে ও বিকালে খেতে হবে।
শ্বাসকষ্টঃ
বুকে সর্দি বা কাশি বসে যাওয়ার কারণে শ্বাসকষ্ট (হাপানি রোগ নয়) হলে তেলাকুচার মূল ও পাতার রস হালকা গরম করে ৩-৪ চা চামচ পরিমাণ ৩ থেকে সাত দিন প্রতিদিন সকালে ও বিকালে খেতে হবে।
কাশিঃ
শ্লেস্মাকাশি হলে শ্লেস্মা তরল করতে এবং কাশি উপশমে ৩-৪ চা চামচ তেলাকুচার মূল ও পাতার রস হালকা গরম করে আধা চা-চামচ মধু মিশিয়ে ৩ থেকে ৭ দিন প্রতিদিন সকালে ও বিকালে খেতে হবে।
শ্লেম্মাজ্বরঃ
শ্লেষ্মাজ্বর হলে ৩-৪ চা চামচ তেলাকুচার মূলও পাতার রস হালকা গরম ২-৩ দিন সকাল- বিকাল খেতে হবে। এ ক্ষেত্রে তেলাকচুর পাতা পাটায় বেটে রস করতে হবে।
স্তনে দুধ স্বল্পতাঃ
সন্তান প্রসবের পর অনেকের স্তনে দুধ আসে না বা শরীর ফ্যাকাশে হয়ে যায়। এ অবস্থা দেখা দিলে ১টা করে তেলাকুচা ফলের রস হালকা গরম করে মধুর সাথে মিশিয়ে তেলাকচুর পাতা একটু তিতে হওয়ায় পরিমাণমত সকাল-বিকাল ১ সপ্তাহ খেতে হবে।
ফোঁড়া ও ব্রণঃ
এ সমস্যায় তেলাকুচা পাতার রস বা পাতা ছেঁচে ফোঁড়া ও ব্রণে প্রতিদিন সকাল-বিকাল ব্যবহার করতে হবে।
আমাশয়ঃ
প্রায়ই আমাশয় হতে থাকলে তেলাকুচার মূল ও পাতার রস ৩-৪ চা চামচ ৩ থেকে ৭ দিন প্রতিদিন সকালে ও বিকালে খেতে হবে।
অরুচিতেঃ
সর্দিতে মুখে অরুচি হলে তেলাকুচার পাতা একটু সিদ্ধ করে পানিটা ফেলে দিয়ে ঘি দিয়ে শাকের মত রান্না করতে হবে। খেতে বসে প্রথমেই সেই শাক খেলে খাওয়াতে রুচি আসবে।
Ivy gourd
Ivy gourd is a fruit cum vegetable which is scientifically known as Coccinia grandis. It belongs to the Cucurbitaceae family and is characterized by ellipsoid to ovoid shape with a smooth texture and green longitudinal strips. It is a perpetual herbaceous vine native to semi-arid regions of Southeast Asia, Northern Africa, Southern Africa and Arabia to tropical South.
These deciduous plants are climbers with tuberous roots, long tendrils, and broad leaves of alternate patterns. They develop in a climate which favors a great place for receiving sunlight along with sandy soil. Their length ranges from 2 to 2.5 inches and has a sticky, thick skin with numerous flat seeds dispersed inside. They display a red color after full ripening.
Other Names
Scarlet Gourd
Gherkin
Cephalandra indica
Tonde Kai
Gentleman’s toes
Baby watermelon
Toruli
Kundri
Kowai fruit
Little gourd
Common Names in Different Languages
Kundru, kundree, tindora, kanturi, tindori, bimb, bimba (Hindi)
Telakucha (Bengali)
Kova, koval (Malayalam)
Tondili, tondali (Marathi)
Ban-kundri, kunduri (Oriya)
Kanduri, kundur (Urdu)
Donda kaya, kaki donda (Telegu)
Covay, kovai, Kotturukanni, tirattikkovai, vattakkovai, Vimpi, naripputu (Tamil)
Talung, phak talung (Thai)
Jivaka, Vimba, Vira, bimbika, patupami, bimbi (Sanskrit)
Pepino Cimarron (Spanish)
Akhu pami, van kiri, kundaruu, Gol Kankri (Nepalese)
Hong gua (Chinese)
Konde ball, Thonde balli, Tondikay, Kaagethonde, Thundike (kannada)
Nutrition Facts
Nutrients Value (per 100 gram)
Protein 1.2 g
Fiber 1.6 g
Fat 0.1 g
Water 93.5 g
Carbohydrate 3.1 g
Energy 18 Kcal
Phosphorous 30 mg
Calcium 40 mg
Iron 1.4 mg
Riboflavin 0.08 mg
Thiamine 0.07 mg
Niacin 0.7 mg
Ascorbic acid 1.4 mg
Potassium 30 mg
Vitamin C 1.4 mg
Vitamin B1 0.07 mg
Vitamin B3 0.07 mg
Vitamin B2 0.08 mg
Health Benefits
Its dietary fiber help in bowel movement and hence allows easy digestion
Juice is useful in maintaining healthy skin
Roots and leaves are helpful for diabetic patients as they lower the body sugar level
Contains antioxidants which reduce the free radicals present in the body
Boosts immunity
Possesses beta-carotene which is a beneficial nutrient to maintain good health
Regulates and manages the functioning of endocrine glands
Due to the presence of glucose-6-phosphatase, it proves to be effective for diabetic patients
Cures various skin infections such as psoriasis, leprosy, and scabies
Useful in treating diarrhea and tongue sores
Flowers help in treating jaundice
Extracts are administered in several medicines to produce tinctures and tablets
Assists in the treatment of bronchial inflammations and respiratory mucosae
Fruits, stems, and leaves balance high blood pressure
Treats skin diseases, asthma, inflammation and diabetes due to its anti-inflammatory, antipyretic, purgative and anticonvulsant properties
Root barks are enriched with cathartic features
Alleviates joint pain and aphthous ulcers
Powdered form cures weakness of liver, worm infestation, dysentery, vomiting, and gastrointestinal problems
Purifies the blood
Roots are used for treating high fever
In Ethiopia, crushed or boiled dried roots are in use to soothe sharp pain and heal kidney infections
Uses
Leaves are used in making tonics
Used as vegetable
Used in curries and soups
Eaten in fried and boiled form
Dried leaves are utilized in preparing a special herbal tea
Used for making pickles
During Pregnancy
There are no side effects, but some experts suggest avoiding its consumption during pregnancy. Therefore, before eating this fruit/vegetable one should consult a doctor.
Newer Posts Newer Posts Older Posts Older Posts

Comments

Post a Comment