The Flower of Maryam/মরিয়ম ফুলের কাহিনী ও এর উপকারিতা

The Flower of Maryam (Anastatica hierochuntica) is a small shrub collected across North Africa, Saudi Arabia, Iran, and Pakistan, and among its most popular medicinal uses is its application for childbirth. Whether its medicinal properties encourage dilation, or if it’s a powerful visualization tool for mothers, traditional midwives have used the Flower of Maryam with their laboring mothers for hundreds of years. A quick glance at its names (below) suggests its religious significance: it is referred to as the “leaf of Maryam” (mother of Jesus), the “hand of Fatima” (daughter of the Prophet ﷺ), as well as simply “daughter of the Prophet ﷺ,” and “resurrection plant.”
Anastatica is notable for its ability to survive in arid conditions—it simply dries up into a ball and awaits the next rain, at which point it reveals small slender leaves and tiny white flowers. It is hygroscopic; its branches immediately reconstitute in the presence of water. It is picked (leaves, woody parts, and seeds) in February to April from shallow gravel desert soils and allowed to dry. As a medicinal preparation, it is reconstituted in water and taken internally for colds, as an emmenagogue (to bring on menstruation), for epilepsy, uterine hemorrhage, and to bring pain relief and support for childbirth. In some places, it is burned as an incense during labor, made into a powder mixed with olive oil and honey, and as a liquid from fresh leaves is used as a treatment for conjunctivitis and other problems of the eye. It has also made its way to Europe where it is used in Christmas celebrations. It is also used medicinally in countries where it does not grow; in Malaysia, it is commonly used for childbirth, where many women purchase herbal preparations directly from tradition midwives.
Its constituents including alkaloids, anastatins, bioflavonoids, glucosinolates, saponins, sterols/triterpenes, and tannins. It also contains a number of elements useful for pregnancy and labor, including calcium, magnesium, potassium, zinc, and iron; in particular, calcium and magnesium work together to coordinate and regulate smooth muscle contractions.
I remember seeing the Flower of Maryam at Uhud, and other midwives I know purchase this plant while visiting Saudi Arabia. I’m not sure whether, if it all, it can be found in the United States, but it is carried in traditional attars and plant markets in areas of the Middle East, Iran, and South Asia. Asking for it by name using the list below will be helpful, particularly if you ask an older woman who is adept at using it. There are plenty of stories about the Flower of Maryam online where women attest to its usefulness, although I’ve yet to see a good description and dosage information for internal use. With this in mind, I’d recommend only using this plant externally unless working with a skilled herbal practitioner.
Arabic: Keff Maryam (كف مريم), shajarat Maryam (شجرة مريم), shajarat el-talk, keff lala Maryam, keff lala Fatma, yid Fatma, keff el-adhra, bint Ennabi, el-kemcha, kerchoud
Berber: Tamkelt
English: Flower of Maryam, St. Mary’s flower, resurrection plant, true rose of Jericho (not to be confused with false rose of Jericho, Selaginella lepidophylla), tumbling mustard, resurrection mustard
French: Main de Fatma, rose de Jericho
Malay: Sanggul Fatimah, buah zuriat (“offspring fruit”)
Persian: Gole Maryum, پنجه مریم , Panjeh Maryam
Turkish: Fatima’nin eli, Meryem bitkisi
Urdu: Maryam booti, Maryam ka phool, Nabi booti
মরিয়ম ফুল 
হরিতকী গুড়া ৫০ গ্রাম ৪০/- টাকা, আস্ত কেজি ২০০/-
বাজার দর অনুযায়ী দ্রব্যমূল্য পরিবর্তনশীল এবং ষ্টক থাকা সাপেক্ষে।
সকল পণ্য হালাল রুপে বাছাই করে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে বাজারজাত করা হয়।
বনাজী ঔষধালয়ে নুতন পণ্যের অর্ডার বিবরনমূল্য জানতে ফেসবুক     
পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন, share করে সহযোগিতা করুন প্লিজ।
ভেষজ গাছ গাছড়ার গুনাগুণ  উপকারিতা জানতে ভিজিট করুন এবং  subscribe করুন। ধন্যবাদ।

Please subscribe/like/follow for next posts, Thanks.www.natureandentertainments.com
অনেক আপুরা পোস্ট টির বেপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন  তাই পুনরায় দিলাম।
>> মরিয়ম ফুল সম্পর্কে আশা করি অনেকেই জানেন। অত্যন্ত দূর্লভ এই ফুলের উপকারিতা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে এর ব্যবহার হয়ে আসছে আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে। বিশেষ করে গর্ভবতী নারীদের প্রসবকালীন সময়ে এই ফুলের ব্যবহার একরকম আবশ্যক। ঐতিহ্যবাহী ধাত্রীরা শত শত বছর ধরে প্রসবকালীন সময়ে মায়ের বেদনা লাঘব করার জন্য এই ফুলের ব্যবহার করছেন।
>> মহানবীর যুগে প্রচলিত বিবি মরিয়মের ইতিহাস থেকে জানা যায় যে এই কুদরতি ফুলটি আল্লাহর রহমতে বেবি কন্সিভ করতে সহায়তা করে এবং লেবার পেইন কমাতে সাহায্য করে।
>> শুধু আমাদের দেশেই নয়, পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশেই এর ব্যবহার হয়ে থাকে। ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন মনীষী এর ব্যবহারের উপর অত্যন্ত গুরুত্বারোপ করেছেন এবং বাতলে দিয়েছেন এর ব্যবহারের সবচেয়ে কার্যকর পদ্ধতিসমূহ। খ্রীষ্ট ধর্মের পবিত্র গ্রন্থ বাইবেলেও এর কথা বর্ণনা করা হয়েছে।
>> এই ফুলকে হযরত ঈসা আঃ এর মায়ের নাম নামানুসারে ‘মরিয়ম ফুল বা মরিয়ম বুটি’, নবী সাঃ এর কন্যা ফাতিমার নামানুসারে “ফাতিমার হাত বা হ্যান্ড অব ফাতিমা” এবং এর বৈশিষ্ট্য অনুসারে ‘পুনরুত্থান উদ্ভিদ’ বলা হয়। কারণ এই ফুল দেখতে খটখটে শুকনো ও মরা মনে হয়। কিন্তু কিছুক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রাখলেই তরতর করে পাপড়ি মেলতে শুরু করে। অল্প সময়ের মধ্যেই ফুটন্ত ফুলের মতো তাজা আর পরিপূর্ণ প্রস্ফুটিত হয়ে যায়। এ এক আশ্চর্য ফুল।
 >> অধিকাংশ নারীই হজ্বে গিয়ে এই মরিয়ম ফুল নিয়ে আসেন। অথবা অন্যকে দিয়ে আনান।  এটি সাহারা-আরবীয় মরুভূমিসহ মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপকভাবে পাওয়া যায়।
>> উপাদান এই ফুলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, দস্তা এবং লোহা। বিশেষত, ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম একসঙ্গে পেশী সংকোচন নিয়ন্ত্রণ করে এর কোন নেতিবাচক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই।
>> কী কাজ করে? প্রসবকালীন সময় এই ফুল বিশেষ প্রক্রিয়ায় ব্যবহার করতে হয়। এতে প্রসূতি মায়ের প্রবস বদেনা লাঘব হয় এবং দ্রুত ও সহজে ডেলিভারী সম্পন্ন করা যায়।
>> ব্যবহারের নিয়মঃ
>> বাচ্চা জন্মের সময় ডেলিভারি পেইন উঠে তখন ফুলটিকে ডেলিভারি রুমে কোন খোলা বাসনে কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে (কুসুম গরম পানি না থাকলে ঠান্ডা পানি হলেও হবে, গরম পানি হলে বেশী ভাল)। ভিজালে ফুলটি আস্তে আস্তে ফুটতে থাকবে এবং যার ডেলিভারি হবে তার জড়ায়ুর মুখ খুলতে থাকবে এবং ব্যাথা বাড়বে। যতই ভিজতে থাকবে ও প্রষ্ফুটিত হতে থাকবে আল্লাহ্ তাআলার দয়ায় মরিয়ম বিবির ফুলের বরকতে বাচ্চার জন্ম খুব সহজ ভাবেই হবে।
>> বেবী হয়ে গেলে পানি থেকে ফুলটি উঠিয়ে ফেলতে হয়।এবং এই ফুলের কাজ শেষে পানি থেকে উঠিয়ে রাখলে আবার আগের মত ছোট হয় কারন এটি একাধিক বার ব্যবহারযোগ্য।
>> আর যারা বাচ্চা কন্সিভ করতে চান তারা শেকড় ভিজিয়ে রেখে তার পানিটা তাহাজ্জুদ নামাজের আগে এবং পরে নিয়ত করে খাবেন এবং এটি অবশ্যই ফযরের নামাজ পড়ার আগেই খেয়ে নিতে হবে।
বি দ্র: আমরা আধুনিক হয়ে গেছি বলে বিশ্বাস মরে যাবে এমনতো নয়!
মরিয়ম ফুল, চন্দন গুড়া, রিঠা পাউডার, শিকাকাই, ত্রিফলা,
             জটামানসী, পুনর্ণবা, পিংক সল্ট, ব্রাঊন সুগারসহ দুষ্প্রাপ্য ভেষজ এবং
                    যাবতীয় বাদাম মসলা আস্ত/গুড়ার জন্য পরিদর্শন করুন
          গাওয়া ঘি, মধু সরিষার তৈল! ভেজালে মূল্য ফেরত
      বাড়ী#২৮,  রোড#,  ব্লক#এফ,  বনশ্রী, ঢাকা
             ফোন: ০১৬২০১২০৮১৭ 







Newer Posts Newer Posts Older Posts Older Posts

Comments

Post a Comment