Orange Peel/কমলা লেবুর খোসা, The Benefits of Orange Peel For Skin./ ত্বকের যত্নে কমলার ছাল।


Fruits are good for our skin and hair, but the humble Orange is a phenomenal fruit as it’s full of ingredients that will help to boost your complexion!
Eating one orange a day or drinking a delicious tangy glass of fresh squeezed orange juice may aid weight loss, boost your immune system, and produce healthier skin. Oranges are rich in calcium, fibre and vitamin C and are low in calories, so they really are a wonderful start to your day.
Oranges are a vibrant and refreshing fruit rich in natural oils and vitamins. They have been used for years as ingredients in recipes, but recently they are being recognised for their beauty enhancing qualities. The benefits of orange for your skin are extensive, making it perfect to use in every aspect of our daily beauty regimes, as the natural properties may improve the look and feel of our skin. There is no need to throw away the orange peel either, it’s perfect for creating face masks and body scrubs, drawing out all the impurities leaving a beautiful healthy glow.
There are many benefits of Orange for skin and here are reasons to embrace summer’s fab orange beauty trend.

Natural oils in Oranges help to moisturise skin, providing softer healthier looking skin for longer.
Antioxidants found in Oranges fight free radicals which may slow down the production of wrinkles, and stop premature aging.
Oranges have a high content of citric acid which aids in skin exfoliation and helps to dry out acne, improving the overall look of your skin.
Orange peel has a higher content of Vitamin C than the orange itself, so grind orange peel and use as a body scrub in your daily beauty regime for a healthy looking glow.
Vitamin C helps the body to form collagen and elastin which will keep your skin looking younger and more supple.
Oranges could also prevent skin sagging, and may improve firmness.
Faith in nature have a wide range of orange products bursting with natural oils and vitamins. The range includes; Grapefruit & Orange Shampoo and Grapefruit & Orange Conditioner, Grapefruit & Orange Shower Gel & Foam Bath, Grapefruit & Orange Hand Wash and Orange Soap.

কমলার খোসা গুড়া ২৫গ্রাম ১০০/- টাকা।
বাজার দর অনুযায়ী দ্রব্যমূল্য পরিবর্তনশীল এবং ষ্টক থাকা সাপেক্ষে।
সকল পণ্য হালাল রুপে বাছাই করে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে বাজারজাত করা হয়।
বনাজী ঔষধালয়ে নুতন পণ্যের অর্ডার বিবরনমূল্য জানতে ফেসবুক     
পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন, share করে সহযোগিতা করুন প্লিজ।
ভেষজ গাছ গাছড়ার গুনাগুণ  উপকারিতা জানতে ভিজিট করুন এবং  subscribe করুন। ধন্যবাদ।
Please subscribe/like/follow for next posts, Thanks.www.natureandentertainments.com
সুন্দরী হয়ে উঠতে প্রতি মাসে কত টাকা খরচ করেন? কম করে ২০০০ টাকা তো হবেই, তাই না! কিন্তু সত্যি বলুন তো এত টাকা খরচ করেও কি মনের মতো ত্বকের অধিকারি হয়ে উঠতে পারেন? বেশিরভাগেই উত্তর যে না হবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই তো এই প্রবন্ধে এমন একটি ঘরোয়া টোটকা সম্পর্কে আলোচনা করা হল, যাকে কাজে লাগালে শুধু স্কিনের সৌন্দর্য বাড়বে না, সেই সঙ্গে ত্বকের স্বাস্থ্যের এত মাত্রায় উন্নতি ঘটবে যে একাধিক স্কিন ডিজিজও ধারে কাছে আসতে পারবে না। কী এই ঘরোয়া টোটকা, যা এত ধরনের কাজে আসে? বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে নিয়মিত কমলা লেবুর খোসাকে কাজে লাগিয়ে যদি ত্বকের পরিচর্যা করা যায়, তাহলে ত্বকের অন্দরে ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং আরও সব উপকারি উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করে। যার প্রভাবে ত্বকের অন্দরে পুষ্টির ঘাটতি দূর হয়। সেই সঙ্গে ত্বক ফর্সা হয়ে ওঠে এবং সৌন্দর্য বাড়ে চোখে পরার মতো। এখন প্রশ্ন হল, ত্বকের পরিচর্যায় কীভাবে কাজে লাগাতে হবে লেবুর খোসাকে?
 স্নানের সময় কাজে লাগান: 
পরিমাণ মতো কমলা লেবুর খোসা নিয়ে সেগুলি রোদে শুকিয়ে নিন। এবার সেই শুকিয়ে যাওয়া খোসাগুলিকে গুঁড়ো করে নিয়ে জলের সঙ্গে মিশিয়ে স্নান করুন। এমনটা করলে ত্বকের অন্দরে বেশ কিছু উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করবে। ফলে স্কিনের সৌন্দর্য তো বাড়বেই। সেই সঙ্গে পুষ্টির ঘাটতি দূর হওয়ার কারণে ত্বকের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও যাবে কমে। প্রসঙ্গত, গত কয়েক দিনে যেভাবে গরমের মাত্রা বেড়েছে, তাতে ত্বকের ক্ষতি আটকাতে আজই বাজার থেকে কমলা লেবু কিনে এনে ত্বকের পরিচর্যায় কাজে লাগাতে শুরু করুন। এমনটা করলে দেখবেন উপকার পাবেনই! 
ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে: 
গরমের সময়ে তাপ প্রবাহের মাত্রা এতটা বেড়ে যায় যে ত্বকের সৌন্দর্য কমতে সময় লাগে না। এমন পরিস্থিতিতে ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে দারুনভাবে কাজে আসে কমলা লেবুর খোসা। এক্ষেত্রে ১ চামচ কমলা লেবুর খোসার গুঁড়োর সঙ্গে ২ চামচ টক দই মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর সেই পেস্টটি মুখে লাগিয়ে কম করে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে ধুয়ে ফেলতে মুখটা। এইভাবে নিয়মিত ত্বকের পরিচর্যা করলে দেখবেন ত্বকের উজ্জ্বলতা তো বাড়বেই, সেই সঙ্গে স্কিন হয়ে উঠবে তুলতুলে এবং প্রাণবন্ত! 
 কমলা লেবুর খোসা, হলুদ এবং মধু: 
খেয়াল করে দেখবেন গরমকালে ত্বক পুড়ে কালো হয়ে যাওয়ার সমস্যায় প্রায় সকলেই ভুগে থাকেন। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে কীভাবে ত্বককে পুনরায় ফর্সা করে তোলা সম্ভব, তা কেউই জানেন না। তাই তো কেমিকাল মিশ্রিত নানাবিধ কসমেটিক্সের ব্য়বহার বাড়তে থাকে। ফলে ত্বকের তো কোনও উপকার হয়ই না, উল্টে স্কিনের অন্দরে কেমিকালের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে স্কিনের মারাত্মক ক্ষতি হয়ে যায়। তাই তো এবার থেকে চটজলদি ত্বককে ফর্সা করে তুলতে বাজার চলতি ফেয়ারনেস ক্রিমের জায়গায় কমলা লেবুর খোসাকে কাজে লাগাতে শুরু করুন। দেখবেন ফল পাবেন একেবারে হাতে-নাতে। এক্ষেত্রে ১ চামচ কমলা লেবুর খোসার পাউডারের সঙ্গে অল্প পরিমাণে হলুদ এবং ১ চামচ মধু মিশিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এরপর সেই পেস্টটি মুখে এবং গলায় লাগিয়ে ৫-১০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে গোলাপ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা। প্রসঙ্গত, এইভাবে সপ্তাহে ২-৩ দিন ত্বকের পরিচর্যা করলে দেখবেন স্কিন টোনের উন্নতি ঘটবে চোখে পরার মতো। তবে এক্ষেত্রে একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে। তা হল যারা ব্রণর সমস্যায় ভুগছেন, তারা ভুলেও এই ফেসপ্যাকটি মুখে লাগাবেন না যেন! 
কমলা লেবুর খোসা, বাদাম গুঁড়ো এবং চন্দন গুঁড়ো: 
কমলা লেবুর খোসার গুঁড়ো ১ চামচ নিয়ে তার সঙ্গে ১ চামচ চন্দন গুঁড়ো এবং বাদাম গুঁড়ো মিশিয়ে নিয়ে তাতে ২-৩ ড্রপ লেবুর রস এবং গোলাপ জল ফেলে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। যখন দেখবেন প্রতিটি উপদান ভাল করে মিশে গেছে, তখন মিশ্রনটি মুখে লাগিয়ে কম করে ৫-১০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে হলকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফলতে মুখটা। প্রসঙ্গত, প্রতিদিন এই পেস্টটা মুখে লাগালে ত্বকের উপরে জমে থাকা মৃত কোষের স্তর সরে যাবে। সেই সঙ্গে ত্বকের অন্দরে পুষ্টির ঘটতি দূর হতে শুরু করবে। ফলে সৌন্দর্য বাড়বে চোখে পরার মতো। 
কমলা লেবুর খোসার গুঁড়ো, মুলতানি মাটি এবং গোলাপ জল
ত্বককে সুন্দর করে তুলতে মুলতানি মাটি এবং গোলাপ জলের কার্যকারীতা সম্পর্কে তো সবাই জানেন। কিন্তু একথা কি জানা আছে যে এই দুটি উপাদানের সঙ্গে কমলা লেবুর খোসার গুঁড়ো মিশিয়ে বানানো পেস্ট যদি মুখে লাগানো যায়, তাহলে ত্বক নিমেষে ফর্সা হয়ে ওঠে। সেই সঙ্গে নানাবিধ স্কিন ডিজিজে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমে। শুধু তাই নয়, ত্বকের গবীরে জমে থাকা ক্ষতিকর উপাদানেরাও বেরিয়ে যেতে শুরু করে। ফলে স্কিন সুন্দর হয়ে উঠতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে ১ চামচ কমলা লেবুর খোসার গুঁড়োর সঙ্গে ১ চামচ মুলতানি মাটি এবং পরিমাণ মতো গোলাপ জল মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর সেই পেস্টটি মুখে এবং গলায় লাগিয়ে ততক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে, যতক্ষণ পেস্টটি শুকিয়ে না যায়। তারপর ভাল করে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা। ৬. কমলা লেবুর খোসা এবং পাতি লেবু: অল্প সময়ে ফর্সা ত্বকের অধিকারি হয়ে উঠতে চান নাকি? তাহলে ২ চামচ কমলা লেবুর খেসার গুঁড়ো নিয়ে তার সঙ্গে পরিমাণ মতো লেবুর রস এবং চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। এই পেস্টটি নিয়মিত মুখে লাগিয়ে যদি ত্বকের পরিচর্যা করতে পারেন, তাহলে দেখবেন ত্বক ফর্সা হয়ে উঠতে সময় লাগবে না। সেই সঙ্গে ব্রন এবং অ্যাকনের প্রকোপও কমবে চোখে পরার মতো।







Newer Posts Newer Posts Older Posts Older Posts

Comments

Post a Comment