Marijuana Seeds/গাঁজা, 8 Ways Marijuana Seeds Can Be Used For Everyday Medicine/গাঁজা যখন ওষুধ

8 Ways Marijuana Seeds Can Be Used For Everyday Medicine
We have all heard about the supposed benefits of using marijuana seeds. Those who push for the use of these seeds have reported that they can be used as medicine, leading to numerous health benefits. It can be hard to know whether to believe the hype around the medicinal properties of this plant. Relying on scientific results is one of the best ways to decide whether the seeds can improve your health or not.
They’re An Excellent Source Of Nutrition 
Hemp, one of the plants under the species name cannabis sativa, has seeds that make for an excellent source of nutrition. Research shows that hemp seeds contain more than 30 percent of healthy fats. Some of the essential fatty acids found in these seeds are linoleic acid and alpha-linoleic acid, which is considered to be the plant-based omega-3. Using the seeds will also help you to benefit from the gamma-linoleic acid which promotes the growth of cells, muscles and organs while supporting normal body functions.
Other nutrients found in the seeds are calcium, potassium, vitamin E, sulphur, phosphorous, magnesium and zinc.
Anxiety, Depression And Insomnia 
Cannabis seeds can also help greatly in dealing with anxiety and depression. This is very helpful since they help in relaxing the body as well as muscles. With these properties, the seeds can also be used to help control nervous, muscular spasms and mobility problems. The relaxation that the compounds in the seeds bring can go a long way in helping to reduce the frequency of epileptic fits.
Those who experience difficulties falling asleep can benefit from using cannabis seeds. The seeds help to reduce the anxiety we experience just before sleeping, allowing the user to enjoy deep and relaxing sleep.
Skin Health 
Deficiency of fatty acids in the body can manifest in many ways, the most common being thick patches of skin, cracked heels and a host of other skin problems. Since one cannabis seed contains high amounts of fatty acids, using the seeds will alleviate symptoms associated with dermatitis and relieve the effects of eczema.
Heart Health 
Cannabis seeds contain a huge number of compounds that are good for a healthy heart. One of these compounds, amino acid arginine, is known to enhance blood flow in the body and maintain the optimal blood pressure. Nitric oxide, which derives from the compounds found in these seeds, is also responsible for helping body muscles to relax and dilate blood vessels so as to allow for free flow of blood.
The seeds can help to significantly reduce blood pressure, reduce the chances of blood clots and speed up recovery after a heart attack.
Plant-Based Protein 
Although high-quality animal sources are remarkable for proteins, cannabis seeds are a great option for vegetarians. Two to three tablespoons of the seeds will supply you with around 11 grams of proteins. You will also get amino acids such as cysteine, methionine and lysine.
Digestion 
Whole cannabis seeds can be used to support digestive health, thanks to the soluble and insoluble fibre contained in the seeds. Soluble fibre can dissolve easily, a factor that slows down digestions and makes you feel full for longer. This will go a long way in helping you to deal with weight control. Insoluble fibre is incapable of dissolving, making it a great product for adding bulk to stool. The resultant effect of this is that food moves seamlessly through the digestive tract and is eliminated healthily.
PMS And Menopause Symptoms 
The gamma-linoleic acid contained in these seeds is known for reducing the effects of a hormone known as prolactin. The hormone prolactin is associated with the physical and emotional symptoms of premenstrual syndrome and menopause. These seeds can help to reduce symptoms during these times.
Helps To Prevent Cancer 
Cannabis is said to promote good general health and has been found to help in the prevention of tumours and various forms of cancer. According to some studies, using cannabis seeds will reduce the risk of developing colon and intestinal cancers. The medicinal properties of the seeds make it a great substance for relieving pain during chemotherapy.
With the wide array of benefits cannabis seeds can have on the body, it’s clear to see that their use in medicine should be considered and used.
Special Precautions & Warnings:
Pregnancy: Cannabis is UNSAFE when taken by mouth or smoked during pregnancy. Cannabis passes through the placenta and can slow the growth of the fetus and increase the risk for premature birth. Cannabis use during pregnancy is also associated with stillbirth, childhood leukemia, abnormalities in the fetus, and the need for intensive care after birth. Also, cannabis use is associated with an increased risk for anemia and high blood pressure in the mother.
Breast-feeding: Using cannabis, either by mouth or by inhalation is LIKELY UNSAFE during breast-feeding. The chemicals in cannabis pass into breast milk. Too much of these chemicals might slow down the development of the baby.
Bipolar disorder: Using cannabis might make manic symptoms worse in people with bipolar disorder.
Heart disease: Cannabis might cause fast heartbeat and high blood pressure. It might also increase the risk of a having heart attack. However, in many cases, people who experienced these events after smoking cannabis had other risk factors for heart-related events such as smoking cigarettes or being overweight.
A weakened immune system: Certain chemicals in cannabis can weaken the immune system. This might make it more difficult for the body to fight infections.
Allergies to fruits and vegetables: Cannabis might increase the risk of an allergic reaction in people with allergies to foods like tomatoes, bananas, and citrus fruit.
Depression: Cannabis use, especially frequent use, might increase the chance of getting depression. It can also worsen symptoms of depression and increase thoughts about suicide in those that already have depression.
Diabetes: Cannabis use might make it harder to control blood sugar levels. It might also increase the risk for long-term complications from diabetes. Until more is known, be cautious using cannabis.
Liver disease: It is unclear if cannabis worsens chronic liver disease. While some weak evidence suggests that there might be a link, other evidence has not found a link. Until more is known, be cautious using cannabis.
Multiple sclerosis: Taking cannabis by mouth might make symptoms of multiple sclerosis worse.
Lung diseases: Cannabis can make lung problems worse. Regular use over a period of years might increase the risk of lung cancer. Some people develop a type of lung disease called emphysema.
Schizophrenia: Using cannabis might make symptoms of schizophrenia worse.
Quitting smoking: Using cannabis might make it harder to quit smoking. Early research suggests that people who use cannabis and want to quit smoking cigarettes are less likely to quit smoking after 6 months than people who don't use cannabis.
Stroke: Using cannabis after having a stroke might increase the risk of having a second stroke.
Surgery: Cannabis affects the central nervous system or the brain and nerves. It might slow the central nervous system too much when combined with anesthesia and other medications during and after surgery. Stop using cannabis at least 2 weeks before a scheduled surgery.
গাঁজা
বাজার দর অনুযায়ী মূল্য পরিবর্তনশীল এবং ষ্টক থাকা সাপেক্ষে।
সকল পণ্য হালাল রুপে বাছাই করে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে বাজারজাত করা হয়।
বনাজী ঔষধালয়ে নুতন পণ্যের অর্ডার বিবরনমূল্য জানতে ফেসবুক     
পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন, share করে সহযোগিতা করুন প্লিজ।
ভেষজ গাছ গাছড়ার গুনাগুণ  উপকারিতা জানতে ভিজিট করুন এবং  subscribe করুন। ধন্যবাদ।

Please subscribe/like/follow for next posts, Thanks.www.natureandentertainments.com
আধুনিককালে গাঁজা বিনোদন বা চিকিৎসার ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। খ্রিষ্টপূর্ব ৩ হাজার বছর আগে প্রাথমিককালে ধর্মীয় বা আধ্যাত্মিক আচার-অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে এর ব্যবহার হতো। বিংশ শতাব্দীর প্রথমদিকে গাঁজা আইনি সীমাবদ্ধতার বিষয় হয়ে ওঠে। ফলে এর ব্যবহার এবং সাইকোঅ্যাক্টিভ ক্যানাবিনয়েডস ধারণকারী গাঁজা প্রস্তুত ও বিক্রয় বিশ্বের অধিকাংশ দেশে অবৈধ হয়ে যায়। জাতিসংঘ একে বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত অবৈধ ড্রাগ হিসেবে বিবেচনা করে।
চিকিৎসাবিজ্ঞানে মারিজুয়ানা বা গাঁজা মূলত চিকিৎসক প্রস্তাবিত ভেষজ থেরাপি হিসেবে ব্যবহার বোঝায়, যা ইতিমধ্যে কানাডা, বেলজিয়াম, অস্ট্রেলিয়া, নেদারল্যান্ডস ও স্পেনে স্থান করে নিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ৩২টি অঙ্গরাজ্যেও এটি একইভাবে স্থান করে নিয়েছে।
ইতিহাস :
গাঁজা একধরনের উদ্দীপক মাদক। খ্রিষ্টপূর্ব ২০০০ সাল থেকে মাদক হিসেবে গাঁজার ব্যবহার হয়ে আসছে । সনাতন ধর্মগ্রন্থ অথর্ব বেদে এবং পুরাণেও গাঁজার কথা উল্লেখ আছে। পুরাণে উল্লেখ আছে যে, দেবতারা গাঁজা গাছের জন্ম দিয়েছেন এবং সমুদ্র মন্থনকালে অমৃত থেকে গাঁজা গাছের উৎপত্তি হয়েছে। ইউরোপে গাঁজা ব্যবহারের তথ্য পাওয়া যায় খ্রিষ্টপূর্ব ৪৫০ সালে গ্রিক দার্শনিক হেরোডোটাসের লেখায়।
নামের উৎপত্তি:
গাঁজা গাছের বৈজ্ঞানিক নাম Canabis sativa Linn. গোত্র Urticaceae. এই গোত্রের অন্য কোনো গাছের কোনো মাদক গুণ নেই। ল্যাটিন ‘ক্যানাবিস’ শব্দটি এসেছে আদি গ্রিক শব্দ ‘কন্নাবিস’ হতে।
গাঁজা গাছের স্ত্রী-পুরুষ আছে এবং দুই গাছেই ফুল বা মঞ্জরি হয়। কিন্তু শুধু স্ত্রী গাছ থেকেই গাঁজা, ভাং বা চরস পাওয়া যায়। মজার ব্যাপার হচ্ছে যে, পুরুষ গাছের কোনো মাদক ক্ষমতা নেই।
বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন নামে এই মাদকদ্রব্যটি পরিচিত। গাঁজা সেবনে ইন্দ্রিয় উত্তেজিত হয় বলে এর আরেক নাম ‘হরষিনী’। গাঁজার আরো ডাকনাম হচ্ছে চার্জ, ড্যাগো (দক্ষিণ আফ্রিকা); গ্রাস, হাস, হেম্প, কিয়েফ (উত্তর আফ্রিকা); পট, টি, উইড (উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা); গাজে, গাঞ্জো (ক্যারিবীয় অঞ্চল)।
গাঁজার বিভিন্ন প্রকারকে একত্রে মারিজুয়ানা বলা হয়। ধারণা করা হয় যে, মারিয়া ও জুয়ানার নামানুসারে প্রথম এই নামটি দেয় মেক্সিকানরা।
স্ত্রী গাছের শুকনো পাতাকে বলা হয় ভাং। বাংলাদেশের পুরান ঢাকায় ভাংয়ের শরবত খুব বিখ্যাত। হিন্দুদের কালীপূজায় ভাংয়ের শরবত তৈরি করা হয়। এ ছাড়া গাঁজাকে সিদ্ধি নামেও ডাকা হয়।
ওষুধ হিসেবে গাঁজার ব্যবহার :
চিকিৎসাশাস্ত্রে গাঁজা পরিচিত উত্তেজক, বেদনানাশক ও নিদ্রাকারক হিসেবে।
১) গাঁজাপাতার গুঁড়া ডায়রিয়া বা উদরাময় নিরাময় করে এবং এর রস ১৫-২০ ফোঁটা দিনে তিনবার খেলে রক্ত আমাশয় নিরাময় হয়।
২) ভাং শিশুদের ক্ষেত্রে ধনুষ্টংকার রোগেও বিশেষ ফল দেয়।
৩) প্রাচীনকালে গনোরিয়াতে গাঁজার ব্যবহার হতো। দুধের সঙ্গে বেটে ক্ষতস্থানে লাগানো হতো।
৪) বর্তমানে ইউরোপে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের ব্যথা কমানোর জন্য গাঁজার ধোঁয়া পান করতে দেওয়া হয়।
৫) হাঁপানিতে গাঁজা দারুণ কার্যকর।
৬) হৃদযন্ত্রের সমস্যায়ও এর ব্যবহার আছে।
ভেষজ গুণ:
গাঁজা শরীরে বিষব্যথা সারায়। এই বক্তব্যের বর্ণনা রয়েছে ভারতবর্ষের প্রাচীন ও মধ্যযুগীয় চিকিৎসাশাস্ত্রে। তবে এ কথাও সুবিদিত যে, গাঁজা, ভাং ও মারিজুয়ানা গ্রহণ মানুষের স্মরণশক্তি হ্রাস করে এবং দীর্ঘ মেয়াদে মনোবৈকল্য ঘটায়। যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা গাঁজা, ভাং ও মারিজুয়ানার ওপর গবেষণা করে জেনেছেন, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ব্যথানাশক ওষুধ এগুলো থেকে প্রস্তুত করা সম্ভব, যা মানুষের কোনো ক্ষতি করবে না। এই গবেষণা করেছে ফ্রান্সের বায়োমেডিক্যাল ইনস্টিটিউট। এর নেতৃত্ব দিয়েছে আইএনএসইআরএম। ফ্রান্সের গবেষকরা জানান, ইঁদুরের মস্তিষ্কের যে অংশের কোষের নিউরনে গাঁজা বা মারিজুয়ানার মাদক ক্রিয়া করে, তা প্রথমে তারা ওষুধ প্রয়োগ করে নিষ্ক্রিয় করেন। এরপর ওই ইঁদুরের শরীরে এই মাদক প্রবেশ করিয়ে দেখা গেছে, তাতে ইঁদুরটি বেহুঁশ হয় না বরং তার প্রাণচাঞ্চল্য ঠিকই থাকে। এ অভিজ্ঞতা থেকে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ব্যথানাশক হিসেবে গাঁজার ভালো গুণ আছে। মানুষের বিভিন্ন রোগের ওষুধ এবং অস্ত্রোপচারের জন্য চেতনানাশক তৈরিতে এর বহুল ব্যবহার করা যাবে। শিগগিরই গাঁজা ও মারিজুয়ানার নির্যাস থেকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন এ ওষুধ প্রস্তুত হবে। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ও আলাবামা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা এক গবেষণায় দেখেছেন, ভাং ও গাঁজা সেবনে ফুসফুসের ক্ষতি তামাক পাতায় প্রস্তুত সিগারেট পানের চেয়ে কম।
হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কেভিন হিলের মতে, গাঁজা অন্যান্য নেশাদ্রব্যের চেয়ে ভালো। তিনি বলেন, মারিজুয়ানা সেবন ভালো নয়- এটা ঠিক। কিন্তু কোনো কিশোর বা তরুণ মারিজুয়ানা সেবন করলে সেটা অপরাধ বললে ভুল হবে। মারিজুয়ানা এক অর্থে গাঁজাই।
অধ্যাপক কেভিন হিল অনেক পরীক্ষা করে জানিয়েছেন, যারা মারিজুয়ানা সেবন করেন তাঁরা পরবর্তীকালে মারিজুয়ানাই খোঁজেন। এদের সাধারণত অ্যালকোহল কিংবা অন্য মাদকে আসক্ত হতে দেখা যায় না। হিল তথ্যও দিয়েছেন সঙ্গে। তার দাবি, ৮০ শতাংশ গাঁজাখোর শুধু গাঁজাসেবনেই সন্তুষ্ট থাকেন।
তিনি বলেন, অন্যান্য নেশার থেকে ঢের ভালো গাঁজা। তাই আপনার কোনো পরিচিতকে গাঁজা খেতে দেখলেই ভয় পেয়ে যাবেন না। আর যাই হোক তিনি গাঁজাতেই সন্তুষ্ট থাকবেন, অন্য মাদকদ্রব্যে আসক্ত হয়ে পড়বেন না।
গাঁজা সেবনে নেশার অনুভূতি :
গাঁজার নেশার অনুভূতি কেমন হবে তা অনেকটাই নির্ভর করবে, সেবনকারী কোন পদ্ধতিতে এবং কী পরিমাণ সেবন করবে। সাধারণত গাঁজা একা একা সেবন করা হয় না। কয়েকজন মিলে একত্রে দলবেঁধে এটা সেবন করা হয়।
সাধারণত গাঁজা সেবনের পর মনে একধরনের আনন্দ দেখা দেয়। গাঁজা সেবনের আগে যদি কারো মনে আনন্দ বা বিষণ্নতা থাকে তাহলে গ্রহণের পরে তা অনেকটাই প্রকট হয়ে দেখা দিতে পারে । গাঁজা সেবনের পর অন্তর্দৃষ্টি খুলে যায় অর্থাৎ খুলে যায় এক কল্পনার রাজ্য। কল্পিত বস্তু, কল্পনার রং আরো প্রখর হয়ে দেখা দেয়। গাঁজা সেবনের ফলে মতিভ্রমও দেখা দেয়। গাঁজা টানার পর বেশির ভাগ ক্ষেত্রে স্থান, কাল, পাত্রের খেয়াল থাকে না। কথা বলার প্রবণতা বেড়ে যায়। চোখ লাল হয়ে যায়। এ ছাড়া শরীরে রক্তচাপ কমে যেতে পারে। ঘন ঘন শুকনা কাশি হতে থাকে। এই অবস্থায় দুই থেকে চার ঘণ্টা চলার পর আস্তে আস্তে শিথিলতা আসে, ঘুম আসে।
গাঁজা সেবনে ক্ষতি :
১) রক্তকোষে পরিবর্তন ও প্রতিরোধী ক্ষমতা হ্রাস পায়।
২) জিনের গঠন পরিবর্তন হয়ে যায়।
৩) ক্যান্সারের সম্ভাবনা দেখা দেয়।
৪ ) যৌন অক্ষমতা তৈরি হয়।
৫) এনজাইনা পেক্টোরিস (যাদের এনজাইনার ব্যথা আছে তাদের জন্য গাঁজা সেবন মারাত্মক হতে পারে)।
৬ ) ফুসফুস রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়।
৭ ) স্নায়ুতন্ত্রে পরিবর্তন আসে।
৮ ) ব্যক্তিত্বের পরিবর্তন বা অর্গানিক ব্রেন-সিনড্রোম দেখা দেয়।

মরিয়ম ফুল, চন্দন গুড়া, রিঠা পাউডার, শিকাকাই, মুলতানি মাটি, ত্রিফলা,
             জটামানসী, পুনর্ণবা, ত্বীন ফল, পিংক সল্ট, ব্রাঊন সুগার কারী পাতাসহ দুষ্প্রাপ্য ভেষজ এবং
                    যাবতীয় বাদাম মসলা আস্ত/গুড়ার জন্য পরিদর্শন করুন
          গাওয়া ঘি, মধু সরিষার তৈল! ভেজালে মূল্য ফেরত
      বাড়ী#২৮,  রোড#,  ব্লক#এফ,  বনশ্রী, ঢাকা
             ফোন: ০১৬২০১২০৮১৭






Newer Posts Newer Posts Older Posts Older Posts

Comments

Post a Comment